প্রতি মিনিটে অ্যালকোহল পানে ঝরছে ৬ প্রাণ

করোনা মহামারিতে বিশ্বে মদপানে মৃত্যুর ঘটনা আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে। যুক্তরাজ্যের একটি সরকারি তথ্যে দেখা গেছে, দেশটিতে ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৫ হাজার ৪৬০ জন মারা গেছেন কেবল মদপানের কারণে, যা ২০১৯ সালের তুলনায় ১৬ শতাংশ বেশি। এ নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন স্বাস্থ্যসংশ্লিষ্টরা।

সম্প্রতি বাংলাদেশে ভেজাল মদপানে বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর ঘটনা শঙ্কা বাড়িয়েছে জনমনে। নাড়া দিয়েছে সারাদেশেও। দেশে ভেজাল মদে মারা গেলেও যুক্তরাজ্যে সাধারণ মদপানেই বেড়েছে মৃত্যু। মূলত করোনা মহামারির প্রথম দিকে, ২০২০ সালের প্রথম নয় মাসে যুক্তরাজ্যে অ্যালকোহল পানে মৃত্যুর নতুন রেকর্ড তৈরি হয়েছে। ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসের তথ্য বিশ্লেষণ করে এটি জানা গেছে। তাদের তথ্য বলছে, জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৫ হাজার ৪৬০ জন মারা গেছেন। যা ২০১৯ সালের তুলনায় ১৬ শতাংশ বেশি। ২০০১ সালের পর যা ভয়াবহ তথ্য।

যুক্তরাজ্যে লকডাউন শুরুর পর আশঙ্কাজনকভাবে এ সংকট তীব্র হয়। বাসায় অলস সময় কাটাতে প্রচুর মদ্যপানে অভ্যস্ত হয়ে পড়েন মানুষ। উল্লেখযোগ্যসংখ্যক নারীরও মৃত্যু হয়েছে এ সময়ে, যা ভাবিয়ে তুলেছে গবেষকদের।

প্রাথমিকভাবে অতিরিক্ত মদপান মৃত্যুর প্রাথমিক কারণ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। তাছাড়া মানসিক যন্ত্রণা কমাতে যেভাবে মানুষ নেশায় আশক্ত হয়ে পড়েন, তাও উদ্বেগের সৃষ্টি করেছে চিকিৎসকদের মধ্যে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যমতে, সারা বিশ্বে বছরে ৩০ লাখ মানুষের মৃত্যু হয় অ্যালকোহল পানে। প্রতি মিনিটে যা ৬ জন। করোনার এ সময়ে এই সংখ্যা আরও বাড়ছে।