ভ্যাকসিন নিচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া?

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া করোনার ভ্যাকসিন নেবেন নাকি নেবেন না, এ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে দলের পক্ষ থেকে কোনো কিছু না জানানো হলেও এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা এখন তুঙ্গে।

‘করোনার ভ্যাকসিন নিতে ইতিবাচক খালেদা জিয়া’ এমন শিরোনামে একটি অনলাইন পোর্টাল সংবাদ প্রকাশ করলেও তাতে দায়িত্বশীল কোনো নেতার সুনির্দিষ্ট বক্তব্য না থাকায় সৃষ্টি হয়েছে ধুম্রজালের। বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খানও বলেছেন, এ ব্যাপারে কোনোকিছুই তিনি শোনেননি বা জানেন না।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন বলেন, ‘ভ্যাকসিন নেয়ার ব্যাপারে বেগম জিয়া ইতিবাচক বা নেতিবাচক কোনোকিছুই নয়। কারণ তিনি অসুস্থ, দীর্ঘদিন ধরে আইসোলেশনে আছেন। তার শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে চিকিৎসকরা যা পরামর্শ দেবেন, সেটাই উনি করবেন। তবে এখনও যেহেতু এ ব্যাপারে কোনো কথা হয়নি, তাই এ নিয়ে আগাম কোনো মন্তব্য করা সমীচীন হবে না।’

করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে বিভিন্ন সমাবেশে দলের সিনিয়র নেতারা নেতিবাচক বক্তব্য দিলেও স্থায়ী কমিটির দু’জন নেতা নজরুল ইসলাম খান ও সেলিমা রহমান ইতোমধ্যেই ভ্যাকসিন নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এছাড়া দলের যুগ্ম মহাসচিব মাহবুবউদ্দিন খোকনও ভ্যাকসিন নিয়েছেন কয়েকদিন আগে।

দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফ্রেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দি ছিলেন বেগম জিয়া। দেশের করোনার প্রকোপ বাড়লে পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে গত বছরের ২৫ মার্চ তাকে শর্ত সাপেক্ষে মুক্তি দেয় সরকার।

তবে বেশকিছুদিন ধরে বিএনপি’র সিনিয়র নেতারা বলে আসছেন, ‘আদতে বেগম জিয়া মুক্ত নন, তিনি গৃহবন্দী’। তার সাথে দলের নেতারা ইচ্ছে করলেই দেখা করতে পারেন না বলেও অভিযোগ তুলছেন তারা।