মিথ্যা তথ্য দিতে যুক্তরাষ্ট্রে লবিস্ট নিয়োগ করেছিল বিএনপি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জামায়াত-বিএনপি মিথ্যা তথ্য দিতে যুক্তরাষ্ট্রে ৮টি লবিস্ট ফার্ম নিয়োগ করেছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ এবং বাংলাদেশকে যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতা না দেওয়ার জন্য এই লবিস্ট ফার্মগুলো কাজ করে বলেও জানান মন্ত্রী।
বুধবার সকালে সংসদে দেওয়া এক ভাষণে এ কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাধাগ্রস্ত করতে ৮টি লবিস্ট ফার্ম নিয়োগ করে, যেখানে প্রতি মাসে তাদের খরচ দিয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার ঢাকার মুক্তিযোদ্ধা জাদুঘরে ‘মানবিক নীতি: এখানে এবং এখন’ শীর্ষক প্রদর্শনী শেষে সাংবাদিকদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বলেন, বিএনপি বিভিন্ন সময় দেশের ক্ষতি করার উদ্দেশ্যে লবিস্ট নিয়োগ দিয়েছে। আমাদের কাছে তথ্য আছে, বিএনপি আটটা না কয়টা লবিস্ট নিয়োগ দিয়েছে বিভিন্ন সময়ে। এর মূল উদ্দেশ্যটা ক্ষতি, দেশের ক্ষতি। দেশকে কোনো ধরনের সাহায্য করবে না।

আবদুল মোমেন বলেন, আপনার-আমার মধ্যে ঝগড়া থাকতে পারে। কিন্তু আপনার-আমার ঝগড়াটা যখন দেশের স্বার্থকে জলাঞ্জলি দেয়, সেটা খুবই দুঃখজনক। লবিস্ট নিয়োগ দেওয়া আইনবিরোধী নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখানে দেখতে হবে কী কারণে লবিস্ট নিয়োগ দেওয়া হল।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সুশাসনের জন্য ও দেশের ইতিবাচক জিনিস তুলে ধরে। আর যখন যুদ্ধাপরাধীদের শাস্তি যেন না হয়, তখন ওরা (বিএনপি) লবিস্ট নিয়োগ দিয়েছিল, তখন সেই ভুল ধারণা পরিবর্তনের জন্য পিআর ফার্ম নিয়োগ দিয়েছি।

তিনি বলেন, দুঃখের বিষয় হলো, আপনি নিয়োগ দিয়েছেন দেশের ক্ষতি করার জন্য, অপহরণ করার জন্য, এগুলো দেশবাসী কোনোভাবেই গ্রহণ করবে না।

সম্প্রতি র‍্যাবের কয়েকজন কর্মকর্তাকে নিষিদ্ধ ঘোষণার পর বাংলাদেশ লবিস্ট নিয়োগ দেয়। রাষ্ট্রের অর্থ অপচয় করে লবিস্ট নিয়োগে বিএনপিসহ বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন ওঠে। এ-সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

এদিকে গতকাল-মঙ্গলবার দেশ ও গণতন্ত্র রক্ষায় বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ করেছে এমন বক্তব্যর ৫ মিনিটের মাথায় আগের বক্তব্য থেকে সরে আসেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এবার তিনি বলেন, বিএনপি যা করে দেশ রক্ষার জন্য করে। মির্জা ফখরুল দাবি করেন, ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করে দেশকে ভয়াবহ ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে আওয়ামী লীগ। এর দায় সরকারকে নিতে হবে।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেল ৩টায় রাজধানীর গুলশান চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ফখরুল অভিযোগ করে বলেন, ক্ষমতায় টিকে থাকতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করে দেশকে ভয়াবহ ঝুঁকিতে ফেলেছে বর্তমান সরকার।

ব্রিফিং শেষে উঠে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল জানান, দেশ ও গণতন্ত্র রক্ষায় লবিস্ট নিয়োগের কথা। বলেন, বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ করেছে দেশকে রক্ষা করার জন্য এবং গণতন্ত্রকে রক্ষা করার জন্য। দুর্বৃত্তদের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করার জন্য। এর ৫ মিনিট পর লবিস্ট নিয়োগ নিয়ে তার দেওয়া বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে আবারও সংবাদমাধ্যমের সামনে হাজির হন মির্জা ফখরুল। সরে আসেন আগের বক্তব্য থেকেও।