ফ্ল্যাক্সিলোডের মাধ্যমে প্রতারণা চক্রের ৪ সদস্য গ্রেফতার

ফরিদপুরের ভাংগা উপজেলার কালামৃধা ইউনিয়ন দেওড়া গ্রাম থেকে তিন প্রতারক চক্রের সদস্যদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এই প্রতারক চক্রের সদস্যরা একটি বেসরকারি মোবাইল ফোন অপারেটর রবি এর ফ্ল্যাক্সিলোডের দোকান থেকে তাদের রবি ইজি লোডের টাকা বিশেষ

মোবাইল এপ্লিকেশন (অ্যাপস্) এর মাধ্যমে পিন হ্যাক করে টাকা হাতিয়ে নিত। তথ্য প্রযুক্তির কল্যাণে যেমন পৃথিবীটা হাতের মুঠোয় চলে এসেছে ঠিক অপর দিকে অভিনব ও অনলাইনে প্রতারণা পাল্লা দিয়ে বাড়ছে।

ভাংগা থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এই প্রতারক চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার কৃত আসামিরা হলেন, উপজেলার কালামৃধা ইউনিয়নের আটরা-ভাসরা গ্রামের লাল চান মিয়ার পুত্র মোঃ রফিক মোল্লা(২৭), একই ইউনিয়নের সোনামুখীর চর গ্রামের

মৃত হামিদ ওরফে হামেদ শেখের পুত্র মোঃ মিন্টু ওরফে মন্টু (৩২), একই ইউনিয়নের মিয়াপারা গ্রামের সাহেব আলীর পুত্র মোঃ সোহেল (২৫) এবং একই উপজেলার পার্শ্ববর্তী আজিমনগর ইউনিয়নের জাঙ্গালপাশা গ্রামের মোহাম্মদ আলীর পুত্র মোঃ মিলন (২৩) এছাড়া ঐ সময় ঘটনাস্থল থেকে আসামীদের আরও ০৩ ( তিন ) সহযোগী পালিয়ে যায়।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের নিকট থেকে বিভিন্ন কোম্পানীর (এন্ড্রোয়েট ও বাটন) ১৪ টি মোবাইল সেটসহ ৪২ টি সিম উদ্ধার করেন থানা পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত আসামীরা সকলে ইয়াবা সেবী (মাদকাসক্ত) এবং দীর্ঘদিন যাবৎ তারা পরস্পর যোগসাজশে মোবাইল ফোনে বিশেষ অ্যাপস্ ব্যবহার করে নিজেদের বেসরকারি মোবাইল ফোন অপারেটর রবি ফ্ল্যাক্সিলোড লোড অফিসের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে , বিভিন্ন ফ্ল্যাক্সিলোড দোকানদারদের বেসরকারি মোবাইল ফোন অপারেটর রবি মোবাইল নম্বরে ম্যাসেজ পাঠিয়ে সু-কৌশলে রবি ফ্ল্যাক্সিলোড

মোবাইল দোকানদারদের কৌশলে পিন কোড জেনে নিয়ে তাদের এ্যাকাউন্টে থাকা রবি ফ্ল্যাক্সিলোডের অর্থ প্রতারণামূলক ভাবে নিজেদের রবি ফ্ল্যাক্সিলোড এ্যাপস – এ স্থানান্তর করে আত্মসাৎ করে আসছে । আটক এই চক্রটি কয়েক মাস ধরে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় ও উপজেলার রবি ফ্ল্যাক্সিলোড দোকানদারদের নিকট হতে অভিনব কৌশলে তাদের ব্যবহৃত মোবাইলে বিশেষ এ্যাপস ব্যবহার করে রবি ফ্ল্যাক্সিলোডের দোকানদের অর্থ হাতিয়ে আসছিল।

এছাড়া গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন এবং জিডিটাল নিরাপত্তা আইনে পৃথকভাবে ২টি মামলা রুজু করে আসামীদের বিজ্ঞআদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

এই বিষয়ে ভাংগা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা বলেন, ভাংগা থানা পুলিশের সদস্যরা ডিজিটাল প্রতারকদের চক্রের সক্রিয় ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মামলা দায়ের করে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।