বন্যায় ছেড়েছিলেন বাড়ি, ফেরা হলো না মা-ছেলের

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে আত্মীয়ের বাড়ি থেকে বাড়ি ফেরার পথে ট্রাকচাপায় বন্যা কবলিত মা ও ছেলে নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় সিএনজি অটোরিকশার চালকসহ তিনজন আহত হয়েছেন।
শুক্রবার সকালে ঐ উপজেলার তেলিখাল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- একই উপজেলার ইসলামপুরের এংরাজ মিয়ার স্ত্রী হনুফা বেগম ও ছেলে শফিকুল ইসলাম। বন্যায় বাড়ি তলিয়ে যাওয়ায় কিশোরগঞ্জে আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছিলেন তারা। সেখান থেকে ফেরার পথে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত হনুফা বেগমের দেবর মহিদুল ইসলাম রতন জানান, বন্যায় ঘরবাড়ি তলিয়ে যাওয়ায় সন্তানকে নিয়ে কিশোরগঞ্জে এক আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছিলেন হনুফা বেগম। পানি কমায় শুক্রবার ভোরে সিএনজিতে বাড়ি ফিরছিলেন তারা। সিলেট-কোম্পানীগঞ্জ সড়কের তেলিখাল এলাকায় রাস্তায় পড়ে থাকা ইটের উপর উঠে যায় সিএনজির চাকা। এতে সিএনজি উল্টে হনুফা বেগম ও তার ছেলেসহ পাঁচজন ছিটকে রাস্তায় পড়ে যান। ঐ সময় পেছন থেকে একটি ট্রাক তাদের চাপা দিয়ে চলে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই দুজনের মৃত্যু হয়। আহত বাকি তিনজনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি সুকান্ত চক্রবর্তী জানান, ঘাতক ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়েছে। তবে ট্রাকচালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে। আইনি প্রক্রিয়ায় লাশ দুটি স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।