হেডফোন লাগিয়ে রেললাইনে বসেছিল স্কুলছাত্র, ট্রেনে কাটা পড়ে মৃত্যু

পাবনার বেড়া উপজেলার আমিনপুরে ট্রেনে কাটা পড়ে নিরব হোসেন (১৭) এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

নিরব সুজানগর উপজেলার রাণিনগর ইউনিয়নের ভাটিকয়া গ্রামের মো. লিটন সরদারের ছেলে ও ঢাকার উত্তরার একটি স্কুলের নবম শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী। আজ শনিবার (২৫ জুন) সকাল ৮ টার দিকে উপজেলার মাশুমদিয়ার ঝুলন্ত রেলসেতু এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, শুক্রবার স্কুল ছুটির পর পুরান মাসুমদিয়ায় নানা মৃত আব্দুল হামিদের বাড়িতে বেড়াতে আসে নিরব। সকালে ঘুম থেকে উঠে কানে হেডফোন লাগিয়ে রেল লাইনের উপরে বসে গান শুনছিলেন। এ সময় ঢালারচর থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহীগামী ঢালারচর এক্সপ্রেস ট্রেনটি কয়েকবার হুইসেল দিলেও কানে হেডফোন থাকায় তা শুনতে পাননি নিরব। পরে ট্রেনটি ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয় তার। স্থানীয়দের আরেকজন জানান, এখানে এর আগেও কয়েকবার ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় মানুষদের সচেতনতার অভাবে ও রেল কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় এমন দুর্ঘটনা প্রায়ই ঘটছে।

এ ঘটনায় আমিনপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন আলী জানান, এ রকম ঘটনা শুনেছি। মরদেহ উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। থানায় অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ঢালারচর এক্সপ্রেস ট্রেনচালকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন, ঈশ্বরদী রেলওয়ে থানা পুলিশের (জিআরপি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোপাল কর্মকার।