মামুনুল আপনি ধর্মের কথা বলে মিথ্যাকে জায়েজ করছেন

আমি দিনে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ি সেই ছোটবেলা থেকে। রাতে যদি কখনো নামাজ না পড়ে বিছানায় যাই, আমার কেন যেন মনে হয় কিছু একটা করার বাকি আছে। ছোট বেলায় আমাদের সকল ভাই-বোনকে পাড়ার মসজিদের ইমাম এসে পড়াতেন। আমাদের সকল ভাই-বোনকে কোরআন তিনিই শিখিয়েছেন। হুজুর মারা গিয়েছেন বেশ অনেক বছর হয়। অথচ আমরা পুরো পরিবার আমাদের হুজুরকে আজও মনে রেখেছি। কারন তিনি একজন চমৎকার মানুষ ছিলেন।

আমি ধার্মিক কিনা সেটা আমার পক্ষে বলা সম্ভব নয়। কারন আমি জানি, আমি এমন অনেক কাজ করি, যেটা হয়ত একজন পরিপূর্ণ ধার্মিক মানুষ করবে না। কিন্তু পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ টুকু অন্তত আমার কখনো বাদ যায় না এবং আমি চেষ্টা করি আমার দ্বারা যেন কারো ক্ষতি না হয়।

খানিক আগে মামুনুল হুজুরের লাইভ ভিডিওটা দেখলাম। সেখানে তিনি নিজ মুখে বলেছেন – টেলিভিশনে যে সব অডিও রেকর্ড এসছে, সে গুলো তার। এই জন্য তিনি দেশের প্রচলিত আইনে মামলা করবেন। এতে তার ব্যক্তিগত বিষয় প্রকাশ করা হয়েছে।
আমি তার এই মতের সাথে একমত। তার ব্যক্তিগত বিষয় এভাবে প্রকাশ করা উচিত নয়। তিনি এই জন্য দেশের প্রচলিত আইনে বিচার চাইতেই পারেন।